আঙুল নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ নেই সাকিবের

0
123

এ মূহুর্তে চিকিৎসার জন্য অস্ট্রেলিয়ায় আছেন সাকিব আল হাসান। সুদুর মেলবোর্ন থেকে চোটাক্রান্ত আঙুল নিয়ে ভক্তদের সুখবর দিলেন তিনি। সাকিব জানালেন, আঙুলের রিপোর্ট নাকি ভালো এসেছে। তাই দুশ্চিন্তার কোন কারণ নেই।

মেলবোর্নে ডা. গ্রেগ হয়ের অধীনে ৪৮ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণ শেষে সুখবরটি জানালেন এই অলরাউন্ডার।

সাকিব বলেন, ‘রিপোর্ট সব ভালো। ইনফেকশন নিয়ন্ত্রণে আছে। তবে পুরো সেরে উঠতে সময় লাগবে। কত সময় লাগবে, সেটি অবশ্য এখনই বলা কঠিন। তবে মেলবোর্নে আরও এক সপ্তাহ থাকতে হবে।’

তিনি আরও জানান, এই এক সপ্তাহ তাকে অ্যান্টিবায়োটিক ইনজেকশন দেয়া হবে। শেষ হলে আরেকবার হাত দেখে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে। তবে আগামি তিন মাস তিনি ব্যাট ধরতে পারবেন না বলে কড়া নির্দেশনা দিয়ে রেখেছেন চিকিৎসক।

উল্লেখ্য, এ বছরের শুরুতে শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের সঙ্গে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে ফিল্ডিং করতে গিয়ে বাঁ হাতের কনিষ্ঠায় চোটটা পেয়েছিলেন সাকিব। চোট কাটিয়ে মার্চে শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফির শেষ দিকে ফেরেন মাঠে। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে আবার মাথাচাড়া দেয় পুরোনো চোট। পরে স্ক্যান করানোর পর জানা যায়, আঙুলের মাঝের হাড় সরে গেছে। অস্ত্রোপচার যে লাগবে, সেটা জানা গিয়েছিল তখনই।

সাকিব চেয়েছিলেন, এশিয়া কাপে না খেলে এই সময় অস্ত্রোপচার সেরে ফেলবেন। কিন্তু দলের চাহিদা মেনে শেষ পর্যন্ত এশিয়া কাপে খেলার সিদ্ধান্ত নেন। খেলেন চারটি ম্যাচও। কিন্তু চোট ভয়াবহ রূপ নেওয়ায় সেমিফাইনালে পরিণত হওয়া পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে ফিরে আসেন দেশে।

আঙুলের অস্ত্রোপচার করাতে সাকিবের যাওয়ার কথা ছিল যুক্তরাষ্ট্রে। কিন্তু যাওয়ার আগে হাতে ব্যথাটা আরো বেড়ে যায়। দ্রুত চলে যান অ্যাপোলো হাসপাতালে। সেখানে গিয়ে জানতে পারেন, চোট পাওয়া আঙুল থেকে ইনফেকশন ছড়িয়ে পড়েছে। পুঁজ জমে ভয়াবহ অবস্থা। সঙ্গে সঙ্গে অস্ত্রোপচার করে পুঁজ বের করা হয়। পরদিন সাকিব জানান, আর কয়েক ঘণ্টা দেরি হলে তার হাতটাই অকেজো হয়ে যেতে পারত!