অবশেষে জনসভার অনুমতি পেল বিএনপি

0
242

ঢাকা: দুই দফা পিছিয়ে অবশেষে রোববার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা করার অনুমতি পেয়েছে বিএনপি। ঢাকা মহানগর পুলিশের অনুরোধে শনিবারের (২৯ সেপ্টেম্বর) বদলে রোববার সমাবেশ করার জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২২টি শর্তসহ ডিএমপি এই অনুমতি দেয়।

বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী শনিবার রাজধানীতে ১৪ দলের কর্মী সমাবেশ হচ্ছে মহানগর নাট্যমঞ্চে। একই দিন সমাবেশ ডাকায় বিএনপিকে একদিন পিছিয়ে রোববার সমাবেশ করার পরামর্শ দেয় ঢাকা মহানগর পুলিশ। বিএনপির কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা জানান, আমাদের দলের পক্ষ থেকে প্রথমে ২৭ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি চাইলে ডিএমপির পক্ষ থেকে জানানো হয়- সেদিন কর্মদিবস থাকায় অনুমতি দেওয়া যাবে না।

পরে তাদের পরামর্শে ২৯ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সরকারি ছুটির দিনে সমাবেশ করার জন্য অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়। তবে একই দিনে রাজধানীতে সরকারি দলের বড় সভা থাকায় সংঘাতের আশঙ্কায় বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেয়নি ডিএমপি। বিএনপির প্রতিনিধি দলকে শনিবার সকালে ডিএমপির সংশ্লিষ্ট দপ্তরে গিয়ে রোববার সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ করার অনুমতি চাইতে বলা হয়। সে অনুযায়ী শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপিতে গিয়ে আবেদন করেন বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ।

আবদুস সালাম আজাদ বাংলানিউজকে বলেন, আমরা দলের পক্ষ থেকে শনিবার ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে যোগাযোগ করি। আমাদেরকে লিখিতভাবে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। রোববার দুপুর ২টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এ জনসভা হবে।

৩০ তারিখ বিএনপি জনসভা করবেই: মওদুদ

এদিকে, রোববারের সমাবেশ থেকে বিএনপি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে পরিষ্কার বার্তা দেবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। সমাবেশে বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে দলের চিন্তা ও অবস্থান পরিষ্কারভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করবে দলটি। সমাবেশ থেকে সরকারের প্রতি যেমন দাবি জানানো হবে তেমনি জাতীয় ঐক্যে আগ্রহী দলগুলোর জন্যও বার্তা থাকবে।

এরইমধ্যে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সমাবেশ থেকে আগামী দিনের করণীয় নিয়ে নীতি নির্ধারণী বার্তা দেওয়া হবে।

অন্যদিকে, বিএনপির ব্যানারে সমাবেশ আয়োজন করা হলেও ২০ দলীয় জোটের শরীক দলগুলোসহ জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত দলগুলোকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে। এই লক্ষ্যে গত ২৫ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠকে বিএনপির প্রতিনিধি হিসেবে দলের ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ঐক্য প্রক্রিয়া ও যুক্তফ্রন্টের নেতাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।